সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২৩

নথি ফাঁসের ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মার্কিন বিচার বিভাগ


অনলাইন ডেস্ক

গুরুত্বপূর্ণ ও গোপন ভান্ডার থেকে ফাঁস হওয়া অনেকগুলো নথির ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে মার্কিন বিচার বিভাগ। শনিবার (৮ এপ্রিল) তাদের পক্ষ থেকে এ কথা জানানো হয়। ফাঁস হওয়া এসব নথির মধ্যে অনেকগুলো ইউক্রেন সম্পর্কিত, যা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানা যায়। এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

গোপনীয়তা লঙ্ঘিত এসব রিপোর্টের মধ্যে মূল্যায়ন এবং গোপন গোয়েন্দা রিপোর্ট অন্তর্ভুক্ত রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। শুধুমাত্র ইউক্রেন এবং রাশিয়ার উপরই নয়, মার্কিন মিত্রদের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের অত্যন্ত সংবেদনশীল বিশ্লেষণও রয়েছে। বিচার বিভাগের এক মুখপাত্র এএফপিকে বলেছেন, ‘আমরা এই বিষয়ে প্রতিরক্ষা বিভাগের সাথে যোগাযোগ করেছি এবং তদন্ত শুরু করেছি।’সাম্প্রতিক দিনগুলোতে টুইটার, টেলিগ্রাম, ডিসকর্ড এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া এবং চ্যাট সাইটগুলোতে কয়েক ডজন ফাঁস হওয়া নথি এবং স্লাইডগুলো তাদের পথ তৈরি করেছে৷

পেন্টাগন শুক্রবার বলেছে, তারা ‘সক্রিয়ভাবে বিষয়টি পর্যালোচনা করছে’ এবং এটি আনুষ্ঠানিকভাবে বিচার বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেছে।মার্কিন কর্মকর্তারা ওয়াশিংটন পোস্টকে বলেছেন, কিছু নথি পাওয়া গেছে ম্যানিপুলেটেড কিন্তু অনেকগুলোই সিআইএ ওয়ার্ল্ড ইন্টেলিজেন্স রিভিউ রিপোর্টের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল, যে গুলো হোয়াইট হাউস, পেন্টাগন এবং স্টেট ডিপার্টমেন্টের শেয়ার হয়েছে। প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকরা বলছেন, অভ্যন্তরীণ শ্রেণীবদ্ধ মার্কিন নথি লঙ্ঘন হবে দেশটির জন্য ক্ষতিকর এবং বিব্রতকর।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *